অন্য মামলায় মিসরে ব্রাদারহুড প্রধানের যাবজ্জীবন

মুসলিম ব্রাদারহুডের সর্বোচ্চ নেতা মোহাম্মদ বদির বিরুদ্ধে একটি মামলায় যাবজ্জীবন সাজার রায় বহাল রেখেছে মিসরের একটি আপিল আদালত। একই সাথে দলটির অন্য দুই নেতার যাবজ্জীবনা সাজা ও আরো ১৪ জনের পাঁচ বছর করে সাজা বহাল রেখেছে। যাবজ্জীন প্রাপ্ত দুজনের মধ্যে আছে ব্রাদারহুডের মুখপাত্র মাহমুদ গোজলা। গত শনিবার এই রায় দেয়া হয়েছে। খবর মিডল ইস্ট মনিটরের।

এ নিয়ে তিনটি মামলায় মোহাম্মদ বদিকে যাবজ্জীবন দিলে মিসরের জান্তা সরকারের আদালত। এবারের এই রায়টি চূড়ান্ত, এর বিরুদ্ধে আর আপিল করার সুযোগ নাই। মিসরের আইনে যাবজ্জীবন সাজা হলে ২৫ বছর কারাগারে কাটাতে হয়। ২০১৩ সালে মোহাম্মদ মুরসির সরকারের বিরুদ্ধে অভ্যুত্থান ঘটিয়ে ক্ষমতা দখলের পর ব্রাদারহুড নেতাদের বিরুদ্ধে মিসরের সামরিক সরকার যেসব মামলা দিয়েছিলো এটি তার একটি। এই মামলাটিতে নেতাদের বিরুদ্ধে ‘সহিংস হামলার পরিকল্পনার’ অভিযোগ আনা হয়েছে।

গণতান্ত্রিকভাবে নির্বাচিত মিসরের প্রথম প্রেসিডেন্ট মুরসিকে ক্ষমতাচ্যুত করার পর মিসর জুড়ে যে বিক্ষোভ হয়েছিলো সে বিক্ষোভ দমন করতেই সেনাশাসক সিসি দেশ জুড়ে গ্রেফতার, হত্যা, নির্যাতন, মামলাসহ বিভিন্ন তৎপরতা চালান। ব্রাদারহুড নেতা-কর্মীদের গ্রেফতার করে গণহারে মামলা দায়ের করা হয়। ২০১৫ সালে এই মামলাটিতে মোহাম্মদ বদি সহ ৩৪ আসামীকে যাবজ্জীবন সাজা দেয়। আসামী পক্ষের আপিলের প্রেক্ষিতে শুনানি শেষে গত শনিবার চূড়ান্ত রায় দিল আদালত।

সিনাইয়ে ৮ সৈন্যসহ নিহত ২২

এদিকে ডেইলি সাবাহ জানায়, মিসরের সিনাই উপত্যকায় সেনাবাহিনীর একটি ঘাঁটিতে হামলায় ৮ সৈন্যসহ নিহত হয়েছে ২২ জন। একটি সশস্ত্র দল সংঘবদ্ধভাবে ক্যাম্পে হামলার চেষ্টা করেছিলো।

মিসরের সেনাবাহিনী জানিয়েছে, শনিবার বিস্ফোরক বেল্ট পরা সন্ত্রাসীরা সেনা ক্যাম্পে প্রবেশের চেষ্টা করে। বাধা পেয়ে তারা বিস্ফোরণ ঘটায়। বিস্ফোরণ ও গুলিতে নিহতের ঘটনা ঘটে। মিসরের সোনবাহিনী বলছে, বড় একটি হামলার পরিকল্পনা ছিলো যা নস্যাৎ করা হয়েছে।




  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত


আন্তর্জাতিক ক্যাটাগরির আরও খবর পড়ুন