মোস্তাফিজের বদলে আবুল হাসান

আবুল হাসান রাজুকে মোস্তাফিজের বিকল্প হিসেবে দেরাদুনে পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। ২৫ বছর বয়সী এ পেসার মোস্তাফিজের সত্যিকারের বিকল্প হতে পারেন না এটি বলার অপেক্ষা রাখে না। আবুল হাসানের টি-টোয়েন্টিতে অভিষেক হয়েছিল ২০১২তে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে। নিজের চতুর্থ ও শেষ টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেছিলেন সে বছরই। তবে এই বছরই তিনি খেলেছেন ওয়ানডে সিরিজ। ইনজুরির কারণে আফগানিস্তানের বিপক্ষে সিরিজে কাটার মাস্টার মোস্তাফিজের খেলা হচ্ছে না। আফগানিস্তানের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজে ভারতের দেরাদুন স্টেডিয়ামের পেস সহায়ক উইকেটে প্রয়োজন ছিল বাড়তি আরো একজন পেসারের। যে কারণে শেষ পর্যন্ত রাজুকেই বেছে নিয়েছে টিম ম্যানেজম্যান্ট। এ বিষয়ে জাতীয় দলের প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নু বলেন, কন্ডিশনের কারণেই দলে নেয়া হয়েছে রাজুকে। ও (রাজু) আমাদের স্ট্যান্ডবাই প্লেয়ার ছিলো। ফাস্ট বোলারের বদলি হিসেবে ফাস্ট বোলার দেয়া হয়েছে। যেহেতু টি-টোয়েন্টি সংক্ষিপ্ত সংস্করণের খেলা, সেখানে ওর সামর্থ্য আছে। তাছাড়া উইকেট দেখার পর টিম ম্যানেজমেন্টও ওকে চাচ্ছিল। এ জন্যই ওকে আমরা আগে স্ট্যান্ডবাই করে রেখে দিয়েছিলাম।’

তিন বছর ওয়ানডে দলের বাইরে থাকা রাজু এ বছরই ফিরেছেন জাতীয় দলে। ত্রিদেশীয় ওয়ানডে সিরিজে খেলেছেন এক ম্যাচ। এরপর ছিলেন না শ্রীলঙ্কায় ত্রিদেশীয় আসর নিদাহাস ট্রফিতে। এক সিরিজ পর দলে ফিরেছেন পেস বোলিং অলরাউন্ডার আবুল হাসান। ৬ বছর পর বাংলাদেশ টি-টোয়েন্টি দলে ফিরলেন সিলেটের এ পেসার। ২০১২-তে টি-টোয়েন্টিতে অভিষেকের পর রাজু খেলেছেন চার ম্যাচ। এর মধ্যে তার প্রাপ্তি মাত্র ২ উইকেট। সবশেষ ম্যাচটি খেলেছেন ওই বছরের ২৫শে সেপ্টেম্বর বিশ্বকাপ টি-টোয়েন্টিতে। শ্রীলঙ্কার ক্যান্ডির পাল্লেকেলে স্টেডিয়ামে পাকিস্তনের বিপক্ষে ৩ ওভার বল করে ৩৩ রানের বিনিময়ে দুই পাকিস্তানি ওপেনার ইমরান নাজির ও মোহাম্মদ হাফিজের উইকেট তুলে নিয়েছিলেন তিনি। এরপর ইনজুরি ও ফর্মের কারণে ছয় বছর তাকে অপেক্ষা করতে হয়েছে টি-টোয়েন্টি দলে ফিরতে।

মঙ্গলবার দেরাদুনে যাওয়া বাংলাদেশ দল গতকাল অনুশীলন করে। তারপরেই হাসানকে দলে নেয়ার সিদ্ধান্ত জানায় বিসিবি। আগামী শুক্রবার দেরাদুনে একমাত্র প্রস্তুতি ম্যাচে মাঠে নামবে বাংলাদেশ দল। সেই দিনই দলের সঙ্গে যোগ দেবেন আবুল হাসান। তার আগের দিন যাবেন অধিনায়ক সাকিব আল হাসান ও প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন। দেরাদুনের উইকেট দেখে সফররত বাংলাদেশ টিম ম্যানেজমেন্টের মনে হয়েছে, এই উইকেটে আবুল হাসান রাজুই কার্যকর বোলার। মূলত মোস্তাফিজ ছিটকে পড়ার পর তার বিকল্প ঘোষণা করতে একটু সময় নিয়েছিল নির্বাচকরা। কারণ দেরাদুনের উইকেট না দেখে তারা সিদ্ধান্ত নিতে চায়নি। সেখানে অনুশীলনের গিয়ে নির্বাচকদের কাছে বার্তা পাঠানোর পরই আবুলকে দলে অন্তর্ভুক্ত করা হয়। যদিও আগে থেকেই নির্বাচকরা আবুল হাসান রাজুকে বিকল্প হিসেবে ঠিক করে রেখেছিলেন।




  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত


খেলা ক্যাটাগরির আরও খবর পড়ুন